Home / উন্মুক্ত পাতা / স্বার্থপর ও নিঃস্বার্থঃ মুহাম্মদ লুৎফুর রহমান তুষার

স্বার্থপর ও নিঃস্বার্থঃ মুহাম্মদ লুৎফুর রহমান তুষার

স্বার্থপর ও নিঃস্বার্থ

লিখছেনঃ মুহাম্মদ লুৎফুর রহমান তুষার


মানুষ জম্মের পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সবচেয়ে বেশী যে শব্দটির সাথে জড়িয়ে থাকে তা হল স্বার্থ। শব্দটির বিভিন্ন রুপ যেমনঃ নিঃস্বার্থ, স্বার্থপর, আত্নস্বার্থ স্বার্থপরতা এগুলোও আমাদের কাছে অতি পরিচিত। সকলের একটা সাধারণ বিশ্বাস পৃথিবীতে একমাত্র জম্মদাতা মা-বাবা ছাড়া সবাই কোন না কোনভাবে স্বার্থপর। সন্তানকে মায়ের দশমাস দশদিন গর্ভে ধারণ, জম্মদান, দুগ্ধপান, লালন-পালন ও রোগে শোকে সেবাদান সবকিছুই কোন স্বার্থ ছাড়া করেন প্রিয় মা জননী। মা ছাড়া অন্যরা আপনার জন্য মনপ্রাণ দিয়ে অনেক কিছু করলেও তারা নিজ স্বার্থের জন্য আপনাকে কোন ছাড় দিবেনা। তাই মায়ের ভালবাসাই একমাত্র স্বার্থবিহীন। মা ছাড়া জগৎ সংসারে চলতি পথে যত মানুষের সাথে আমাদের চলাফেরা, উঠাবসা সবার সাথেই শুরু হয় একটা স্বার্থের হিসাব নিকাশ।মানুষ মাত্রই স্বার্থপর হয় বা নিজ স্বার্থের প্রতি অনেক বেশী সজাগ হয়। মানুষ নিজের বেলায় ষোল আনা আর অন্যের বেলায় আধা আনার হিসাবেও নেই। এসব আমার মত স্বার্থপর মানুষের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। হাতের পাঁচ আঙ্গুলের মত সব মানুষও সমান নয়। কিছু কিছু মানুষ নিজের ব্যক্তিস্বার্থকে ত্যাগ করে কাজ করে যান পরকল্যাণে। তারা স্বল্পপ্রাণ নন,মহৎ তাদের হৃদয়, তাদের কাছে বাধা হতে পারেনা স্বার্থপরতার বলয়। এমন নিঃস্বার্থভাবে নীরবে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে অনেক ব্যক্তি ও সংগঠন। আমাদের প্রিয় চুনতির তেমনি এক আশার আলো হয়ে মানুষর মাঝে পরম মমতা আর ভালবাসা বিলিয়ে যাচ্ছে খাঁন ফাউন্ডেশন। পার্থিব কোন প্রতিদান বা বিনিময় নয়, মানুষের প্রতি ভালবাসায় নিঃস্বার্থভাবে করে যাচ্ছেন মানবসেবা। খাঁন ফাউন্ডেশন প্রতিবছর চিকিৎসা ক্যাম্পের আয়োজন ও জটিল রোগীদের অপারেশনের মাধ্যমে জীবনে যে নতুন আশার আলো জাগিয়ে দিচ্ছেন তা বিমোহিত করবে যে কাউকেই। তাদের প্রশস্ত হৃদয়ে জায়গা হয়েছে চুনতির শত শত অসহায় মানুষের। পরম কৃতজ্ঞতা ও ভালবাসা বড় যতনে হৃদয়ের গহিনে তোলা আছে সেসকল পরোপকারীদের জন্য যারা নিজেদের লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে আনন্দ খুজে নিয়েছেন প্রিয় গ্রামের অসহায় মানুষের মাঝে। জান্নাতুল ফিরদাউস হোক পরকালে তাদের একমাত্র ঠিকানা। কিন্তু আমাদের মত স্বল্পপ্রাণ মানুষেরা চাইলেও তাদের মত হতে পারিনা। স্বার্থের চিন্তা, আনা আনা হিসাব আর বেশী পাওয়ার লোভ আমাদের রাতের ঘুমটাকেও ঠিকমত হতে দেয়না। স্বার্থপর মানসিকতা সব সময় আমাদের এক নিদারুণ যন্ত্রণায় রাখে। স্বার্থের হিসাব যেখানে সেখানে চলে আসে পরশ্রীকাতরতা ও ঈর্ষাপরায়ণতা। স্বার্থের কারণে প্রতিনিয়ত নষ্ট হয় আত্নার ও আত্নীয়তার সম্পর্ক। কেউ কাউকে ছাড় না দেওয়ার মানসিকতা আজ আমাদের সমাজে প্রতিষ্ঠিত সত্য। অথচ যে তুচ্ছ স্বার্থের জন্য আমরা পরস্পরের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামি তারাই আমাদের পরম আত্নীয় ও হয়ত রক্তের সম্পর্কের সম্পর্কের কেউ। যারা আমরা মরলে হয়ত সবার আগে শেষ বিদায়ের কাফন দেওয়ার জন্য আসবে। আমাদের মৃত্যুর পর তারাই হয়ত আমাদের জন্য সবচেয়ে বেশী অশ্রু ফেলবে। মানুষ যখন মরে যায় সাধারণত কেউ তার অতীতের খারাপ দিকগুলো নিয়ে আলোচনা করেনা। আজ যদি আমাদের স্বার্থপর মানসিকতার জায়গায় ক্ষমার মানসিকতা স্থান করে নিত, তবে কতইনা সুন্দর হত আমাদের সমাজ ব্যবস্থা। কারো স্বার্থপর আচরনের বিপরীতে আমরা যদি নিঃস্বার্থ আচরণ করতে পারি তবে আমরাই হব সবচেয়ে বেশী মর্যাদাবান। সবকিছুই যদি আমরা সহজভাবে মেনে নিতে পারি তবে কখনোই মনোযন্ত্রণায় ভোগবনা। নষ্ট হবেনা আমাদের রাতের ঘুম। ছোটখাট ভুল বুঝাবুঝি, খারাপ ব্যবহার এসবকে বড় করে না দেখে এসব। হতেই পারে এই মানসিকতা নিয়ে চললে দেখবেন আপনি মানসিক প্রশান্তি পাচ্ছেন। কেউ একজন আপনার স্বার্থে অাঘাত হানলে তখন যদি প্রতিশোধপরায়ণ না হয়ে ক্ষমার উদারতা দেখাতে পারেন তবেই আপনার প্রকৃত মনুষ্যত্ববোধের পরিচয় ফোটে উঠবে। ঠুনকো বিষয়ে কারো সাথে খারাপ ব্যবহার করলে বা মনে কষ্ট দিলে আপনাকেও এক ধরণের মানসিক যন্ত্রনায় থাকতে হবে। আমার অল্প বয়সের স্বল্প অভিজ্ঞতায় এই উপলব্ধি পৃথিবীতে স্বার্থপররা কখনো সূখী হতে পারেনা। নিঃস্বার্থরাই মানসিক প্রশান্তি নিয়ে পৃথিবী থেকে চলে যায়। একটু ছাড় দেওয়ার মানসিকতায় পারে আমাদের মানসিক প্রশান্তি দিতে। সমাজে নিঃস্বার্থ মানুষের সংখ্যা বাড়ুক, সমাজ হোক বাসযোগ্য। স্বর্গসুখ নেমে আসুক ধরণীর বুকে।

About Tamzid20

Check Also

আজ লেখক আহমদ ছফার মৃত্যুবার্ষিকীঃ হিযবুল্লাহ রায়হান

২০০১ সালের ২৮শে জুলাই শনিবার ছিলো, আজকেও শনিবার। এই দিনেই মহাত্মা আহমদ ছফা’কে হারিয়েছে বাংলাদেশ। …

আজ লেখক আহমদ ছফার জন্মদিনঃ হিযবুল্লাহ রায়হান

১৯৪৩ সালের ৩০শে জুন চট্টগ্রামের গাছবাড়িয়ায় প্রত্যন্ত এক গ্রামে ছেলেটির জন্ম। কাঠমিস্ত্রি ও কৃষক বাবার …

লোহাগাড়া উপজেলায় ইটভাটা স্থাপনে মানা হচ্ছে না নিয়ম 

বিশ্ব পরিবেশ দিবসে পরিবেশ দূষণ রোধকল্পে লোহাগাড়া উপজেলার চরম্বা ইউনিয়নের নোয়ারবিলা এলাকার মানুষের পক্ষে লিখছেন- …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *